তুরস্কে ১ হাজার কোরআনের হাফেজ পেলেন বিশেষ সম্মাননা

তুরস্কের এরজুরুম ভিলায়েত প্রদেশে সদ্য কোরআন হাফেজ হওয়া সর্বমোট এক হাজার একজন শিক্ষার্থী পেয়েছেন বিশেষ সম্মাননা। তুরস্কের উচ্চপদস্থ সরকারি কর্মকর্তা, হাফেজদের অভিভাবক ও স্থানীয় ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে বর্ণাঢ্য এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তাদের এই সম্মননা দেওয়া হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার (১২ জানুয়ারি) ইয়াকুতিয়া অঞ্চলের সেন্ট্রাল ইনডোর স্পোর্টস হলে বর্ণাঢ্য এই আয়োজন হয়। পবিত্র কোরআন তিলাওয়াতের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানটি শুরু হয়।

উদ্বোধনী বক্তব্যে পবিত্র কোরআন হিফজের গুরুত্ব তুলে ধরে তুরস্কের ধর্মবিষয়ক প্রকাশনা বিভাগের মহাপরিচালক অধ্যাপক ড. ফাতিহ কুরত জানান, ‘আমরা এমন জাতি যারা পবিত্র কোরআনকে অন্তরে ধারণ করি এবং জীবনভর এর সেবা করতে ভালোবাসি। যত দিন কোরআনের সঙ্গে আমাদের সুসম্পর্ক বজায় থাকবে তত দিন আমরা সুদৃঢ় থাকব।’

এসময় বিগত বছর হিফজ সম্পন্নকারীদের সংখ্যার তথ্য জানিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘২০২২ সালে তুরস্কে সাড়ে ১২ হাজার ছেলেমেয়ে পবিত্র কোরআন হিফজ করেছে। তুরস্কের প্রতিষ্ঠার পর থেকে এবারই প্রথম এত বেশিসংখ্যক শিক্ষার্থী কোরআন মুখস্থ করেছে। কোরআনে রয়েছে আল্লাহর মনোনীত জীবনব্যবস্থা, যা অনুসরণ করা আমাদের কর্তব্য।’ তার মতে, দুনিয়ায় মানুষ যেসব নেয়ামত ও পুরস্কার অর্জন করতে পারে, তার মধ্যে পবিত্র কুরআনের হাফেজ হওয়া সবচেয়ে বড় বিষয়।

উল্লেখ্য, স্থানীয় দারুল ইফতা আয়োজিত গ্র্যাজুয়েশন অনুষ্ঠানে তুরস্কের ধর্মবিষয়ক প্রকাশনা বিভাগের মহাপরিচালক অধ্যাপক ড. ফাতিহ কুরত ছাড়াও এসময় উপস্থিত ছিলেন তিলাওয়াত কাউন্সিলের প্রধান হাফেজ উসমান শাহিন, স্থানীয় মুফতি রুস্তম জানসহ আরও অনেকে। সূত্র : টিআরটি এজেন্সি

পাঠকের মন্তব্য:

Check Also

সাইকেলে করে হজ যাত্রা, মক্কায় পৌঁছানোর পর মৃত্যু

জার্মানি থেকে হজের উদ্দেশে সাইকেলে করে রউনা হন সিরিয়ান গাজী জসিম শেহাদেহ। কিন্তু মক্কায় পৌঁছানোর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *