শাকিব আমার ‘ইমেজ’ নষ্ট করছে, আর চুপ থাকব না: বুবলী

চিত্রনায়িকা শবনম বুবলীর কষ্ট, “প্রায় সাত বছরের সম্পর্কে কখনো তার (শাকিব খান) সম্মানহানি হয় এমন কোনো কথা কখনো কোথাও বলিনি। তার সম্মান যেনো ঠিক থাকে সর্বদা সেদিকে খেয়াল করে চলেছি। তার অনুমতি নিয়েই অন্য নায়কদের সঙ্গে কাজ করেছি। কিন্তু তাতে কী হলো? সে তো একের পর এক মন্তব্য করে আমার সম্মানহানি করছে। আমার ইমেজ নষ্ট করছে।”

বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) দৈনিক সমকালকে এসব কথা বলেন চিত্রনায়িকা শবনম বুবলী।

সমকাল বলছে, এসব কারণে শাকিব খান ইস্যুতে আর চুপ থাকতে চান না বলেও জানান এই নায়িকা। নিজের সম্মান ও সন্তানের ভবিষ্যতের কথা ভেবে সংবাদ সম্মেলন করে বিস্তারিত জানাতে চান বুবলী।

তবে তিনি কবে নাগাদ সংবাদ সম্মেলন করতে পারেন সেটি জানা যায়নি।

বুবলীর ভাষ্য, “যা হচ্ছে তার তো একটা বিহিত দরকার। এভাবে আর কত?”

তিনি আরও বলেন, “দুই দিন পর পর আমাকে নিয়ে এভাবে মন্তব্য করা তো মেনে নেওয়া যায় না। আমি তো সবকিছু ঠিক রাখতে চেষ্টা করছি। যখন তার সঙ্গে যোগাযোগ থাকে তখন এক রকম, আবার একটু দূরে এলেই আরেক রকম। কিন্তু আমি তো তার সম্মান হেয় এমন কখনও কিছু বলিনি, করিওনি। তাহলে আমাকে নিয়ে কেনো একের পর এক এভাবে মন্তব্য!”

“তাই ভাবছি এখন আমার উচিত বিষয়গুলো নিয়ে কথা বলা। না হলে সবাই আমাকে ভুল বুঝবে।”

গত ২০ নভেম্বর ছিল চিত্রনায়িকা বুবলীর জন্মদিন। ওইদিন দৈনিক প্রথম আলোকে বুবলী জানান, শেহজাদ খান বীরের বাবার কাছ থেকে ডায়মন্ডের নাকফুল উপহার পেয়েছেন তিনি।

এমন খবরের পরই শাকিব খান গণমাধ্যমে দাবি করেন, তিনি বুবলীকে নাকফুল দেননি। তার সঙ্গে বুবলীর ছেলের বিষয় ছাড়া অন্য কোনো বিষয়ে যোগাযোগও হয় না।

শাকিব বলেন, “কোনো ধরনের ডায়মন্ড নাকফুল আমি তাকে উপহার দিইনি। সত্যি কথা বলতে, তার সঙ্গে আমার কোনো ধরনের যোগাযোগ নেই। উপহার দেওয়া কিংবা উইশ করা-কোনোটিই আমার পক্ষ থেকে হয়নি। সন্তানের প্রয়োজনে সে আমাকে বা আমি তাকে লিখলেও তা শুধু শেহজাদকে কেন্দ্র করে যতটুকু দরকার, ততটুকুই হয়, এর বাইরে আর কোনো কিছুর প্রশ্নই আসে না।”

বিষয়টি নিয়ে যেমন ক্ষুব্ধ ও বিব্রত বুবলী, তেমনি অসন্তুষ্ট খোদ শাকিব ভক্তরাও। অনেকেই বিষয়টিকে সবার সামনে না এনে ঘরের ভেতরে সমাধানের পরামর্শ দিয়েছেন।

এদিকে, বুবলীকে নাকফুল দেওয়ার খবরটি শাকিব খানের প্রাক্তন স্ত্রী অপু বিশ্বাস ব্যক্তিগত ফেসবুক প্রোফাইলে শেয়ার করে ক্যাপশনে লেখেন, “কী যে মজা।”

অপু বিশ্বাসের এই স্ট্যাটাসের পরে বুবলীও ছাড় দেননি। কারো নাম উল্লেখ না করে গত ২৩ নভেম্বর ফেসবুকে ব্যক্তিগত প্রোফাইলে এক স্ট্যাটাসে লেখেন, “একজন হঠাৎ করেই বলে উঠলো ‘আরে ওই বেটি যে আপনাদের ছবিসহ নিউজ তার নিজের ফেইসবুক ওয়ালে বাঁধাই করে রাখছে, এটাই তো আপনার মজা। এতেই তো বোঝা যায় তার শয়নে-স্বপনে শুধুই আপনি, হাহাহা।”

বুবলীর এই পোস্টের কিছুক্ষণ পরে ফের পাল্টা পোস্ট দেন অপু বিশ্বাস।

Check Also

সিয়ামের চড়ে গাল কেটে গেছে সুনেরাহর

গতকাল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে। যেখানে দেখা যায়, একটি কনসার্টে অভিনেত্রী সুনেরাহ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *