দীঘির কাছে ভোট চাইলেন তার বাবা

ঢাকার সিনেমায় শিশুশিল্পী হিসেবে আকাশচুম্বী জনপ্রিয়তা পেয়েছিলেন প্রার্থনা ফারদিন দীঘি। অভিনয় করেছিলেন প্রায় দেড় ডজন সিনেমায়। তবে গত বছর ‘তুমি আছো তুমি নেই’ সিনেমার মাধ্যমে নায়িকা হিসেবে অভিষেক হয় দীঘির। এরপর তিনি আরও কয়েকটি সিনেমায় কাজ করেছেন। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বায়োপিকেও একটি গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে আছেন এই অভিনেত্রী।

তবে এতো বছর চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সদস্য ছিলেন না দীঘি। সদস্য হওয়ার পর শিল্পী সমিতির আসন্ন নির্বাচনে প্রথমবারের মতো ভোট দেবেন তিনি। দীঘির বাবা সুব্রত মিশা-জায়েদ প্যানেল থেকে ‘সহ-সাধারণ সম্পাদক’ পদে নির্বাচন করছেন। রোববার (২৩ জানুয়ারি) বিকালে অনুষ্ঠিত হয়েছে মিশা-জায়েদ প্যানেলের পরিচিতি। সেখানেই হাজির হন দীঘি। এক পর্যায়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন এই তরুণী। তখন তার বাবা আনুষ্ঠানিকভাবে মেয়ের কাছে ভোট চান।

সুব্রত বলেন, ‘প্রার্থনা ফারদিন দীঘি, তুমি এবার প্রথম ভোটার হয়েছো। তুমি জানো যে সহ-সাধারণ সম্পাদক পদে সুব্রত দাঁড়িয়েছে। সে তোমার কী হয়, তা জানার দরকার নেই। তুমি এবার প্রথম ভোটার হিসেবে সুব্রতকে তোমার ভোট প্রদান করবে। এটাই আমি মনেপ্রাণে কামনা করি।’ প্রথমবার ভোটার হয়ে দীঘি বলেন, ‘এবার নিজে ভোট দিতে পারবো এ কারণে আমি খুবই এক্সাইটেড। এর আগে হয়তো চাইলে ভোটার হতে পারতাম। কিন্তু বাবা কেন জানি আমাকে সদস্য করেনি। বাবা সবসময় বলতেন, আস্তে ধীরে ভোটার হওয়া যাবে।’

এদিকে বাবার জয় নিয়ে শতভাগ আশাবাদী দীঘি। তিনি বলেন, ‘বাবাকে আমি কখনও নির্বাচনে হারতে দেখিনি। তিনি সবসময় তার কর্মগুণে জয়ী হয়েছেন। আমি মনে করি আমার ভোট চাওয়ার জন্য বাবা জিতে যায় এমনটা নয়। তিনি সকলের পছন্দের মানুষ। তাকে আপন মনে করে প্রতিবার সবাই ভোট দেয়।’

পাঠকের মন্তব্য:

Check Also

ফের বিয়ে করেছেন শবনম ফারিয়া

গোপনে ফের বিয়ে করেছেন ছোট পর্দার অভিনেত্রী শবনম ফারিয়া। তার দ্বিতীয় বিয়ে নিয়ে প্রকাশ্যে কিছু …

Alok Barta