Thursday , June 30 2022

স্কুলের মধ্যেই শিক্ষিকাকে পেটালেন প্রধান শিক্ষক

রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে একজন সহকারী শিক্ষিকাকে পেটালেন প্রধান শিক্ষক। রোববার দুপুরে উপজেলার ক্ষুদ্র শাওলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে। আহত নারী শিক্ষককে গোদাগাড়ী ৩১ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, ক্ষুদ্র শাওলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আকরম আলীর সঙ্গে ওই স্কুলের সহকারী শিক্ষক সাইদা ইসলামের কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে প্রধান শিক্ষক আকরম আলী নারী শিক্ষক সাঈদা ইসলামকে বেধড়ক পেটাতে থাকেন। এর ফলে সাঈদা ইসলাম কান ও হাতসহ দেহের বিভিন্ন স্থানে আঘাত পান।

শিক্ষক সাঈদা ইসলাম অভিযোগ করেন, প্রত্যায়নপত্রের জন্য শিক্ষার্থীদের অভিভাবকদের কাছ থেকে টাকা নিচ্ছিলেন প্রধান শিক্ষক আকরম আলী। এ বিষয়ে প্রতিবাদ করলে প্রধান শিক্ষক তাকে পেটান। ২০১৮ সালেও বিদ্যালয়ের আরেক নারী শিক্ষককে পিটিয়েছিলেন প্রধান শিক্ষক আকরম আলী।

এ ব্যাপারে উপজেলা শিক্ষা অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) লাইলা তাসলিমা নাসরিন বলেন, নারী শিক্ষককে পেটানোর অভিযোগে প্রধান শিক্ষক আকরম আলীর বিরুদ্ধে তদন্ত করে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

গোদাগাড়ী মডেল থানার ওসি কামরুল ইসলাম বলেন, অভিযোগ পেলে এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নারী শিক্ষককে পেটানোর অভিযোগের ব্যাপারে প্রধান শিক্ষক আকরম আলীর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

Check Also

ছোট্ট ওয়ালিদের লাশ দেখে মায়ের চিৎকার, সারা শরীরে খুনিদের নৃশংসতা

ওয়ালিদ। বয়স মাত্র তিন বছর। কথা বলতো আধো আধো স্বরে। হাসি-খুশি আর দুষ্টুমিতে মাতিয়ে রাখতো …

Leave a Reply

Your email address will not be published.