Monday , July 4 2022

অনৈতিক সম্পর্ক করতে গিয়ে স্কুল শিক্ষিকাসহ যুবক আটক

পাবনার চাটমোহরে অনৈতিক সম্পর্কে জড়িত থাকার অভিযোগে আয়শা খাতুন (৩৬) নামের এক স্কুল শিক্ষিকা ও তার কথিক প্রেমিক আব্দুর রহিম (৩৩) নামের এক যুবককে আটক করেছে এলাকাবাসী। বৃহস্পতিবার (৩০ ডিসেম্বর) বেলা ১১টার দিকে ওই শিক্ষিকার নিজ শয়ন কক্ষ থেকে তাদের আটক করে
পুলিশ।

আটক আয়শা খাতুন চিনাভাতকুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষিকা ও নিমাইচাড়া ইউনিয়নের মির্জাপুর গ্রামের আনিছুর রহমানের মেয়ে। তার সাথে আটক কথিত প্রেমিক আব্দুর রহিম উপজেলার ছাইকেলা ইউনিয়নের কাঠেঙ্গা গ্রামের মৃত ছফুর প্রামাণিকের ছেলে।

এলাকাবাসীর থেকে জানা যায়, অবিবাহিত স্কুল শিক্ষিকা আয়শা খাতুনের বাড়িতে তার কথিত প্রেমিক আব্দুর রহিম গোপনে মাঝে মধ্যেই যাওয়া আসা করে। তাদের চলাফেরায় এলাকাবাসীর সন্দেহ হলে এলাকার কিছু যুবক তাদের নজরে রাখতে থাকেন। বুধবার রাতে ঐ শিক্ষিকার বাড়ির আশে পাশে যুবক রহিম ঘোরাঘুরি করতে থাকে এবং রাত ১১ টার পরে সে শিক্ষিকার বাড়িতে প্রবেশ করে।

এরপর রাতে সেখানে কাটিয়ে শিক্ষিকার বেডরুম থেকে ভোর রাতে বের হতে লাগলে এলাকাবাসী ঐ বাড়ির সামনে গিয়ে অবস্থান করে এবং যুবকের বের হওয়ার সব রাস্তা বন্ধ করে দেয়। পরে দলে দলে উৎসুক মানুষ ঐ বাড়ির সামনে ভিড় করতে থাকে। পরে স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে নিমাইচড়া ইউনিয়নের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান নুর জাহান বেগম মুক্তি ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে হান্ডিয়াল তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ বৃহম্পতিবার (৩০ ডিসেম্বর) বেলা ১১টার দিকে হাজির হয়ে দুজনকে সেখান থেকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়।

ঘটনার বিষয়ে হান্ডিয়াল তদন্ত কেন্দ্রের আইসি এসএম নুরুজ্জামান জানান, তাদের উদ্ধার করে চাটমোহর থানায় প্রেরণ করা হয়েছে। এ বিষয়ে চাটমোহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ আনোয়ার হোসেন বলেন, এমন ঘটনা আমরা জানার পরে এবং সেখানে অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে যুগলদ্বয়কে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। গ্রামের কেউ যদি অভিযোগ দেয় তবে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করবো। এছাড়াও ঐ মহিলাও যদি অভিযোগ দেয় তবুও আমরা আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করবো।

Check Also

হোটেলে বান্ধবীর সঙ্গে মিলনে টাকা জোগাড় করতে বন্ধুকে নৃশংস খু;ন

নারীর সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হতে চায় ১৬ বছরের কিশোর। ভাড়া করা সেই নারীর সঙ্গে দিনক্ষণ ঠিক …

Leave a Reply

Your email address will not be published.