Thursday , June 30 2022

আবারো বিয়ে করলেন শ্রাবন্তী?

বিয়ের মৌসুম চলছে। বলিউড থেকে টলিউড, সর্বত্র সানাইয়ের সুর। সেই সুরেই আচমকা বর-কনের বেশে হাজির ভারতীয় অভিনেতা ওম সাহানি ও ভারতীয় অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়।

লাল বেনারসি, গাভর্তি সোনার গয়না আর গোড়ের মালায় সেজে পারফেক্ট বাঙালি কনে শ্রাবন্তী পাশে টোপর মাথায় দিয়ে তৈরি বর ওম। কেউ কেউ যখন ভাবছিল ভয় পাবে তাঁরা, সেটা না হয়ে উল্টো ভালোবাসা ছড়িয়ে দিলেন দুজনে! তারই ঝলক নিজেই প্রকাশ্যে আনলেন শ্রাবন্তী। সঙ্গে বুঝিয়ে দিলেন নিন্দুকদের অকারণ মাথাব্যথার দরকার নেই, পর্দায় তাঁদের রসায়ন কম জমজমাট হবে না। খবর হিন্দুস্থান টাইমসের।

তবে পলক ফেলতেই রোজকার দিনের অনায়াস সাজে ধার দিয়েছেন তাঁরা। ওমের পরনে জিনস-শার্ট এবং শ্রাবন্তী সেজেছেন সালোয়ার-কামিজে। আগামী ৪ জানুয়ারি থেকে শুটিং শুরু হবে এই ছবির। বছরখানেক আগেই ‘হুল্লোড়’ ছবিতে একসঙ্গে কাজ করেছেন ওম-শ্রাবন্তী, তবে সেইবার তাঁদের জোড়িদার ছিল দর্শনা ও সোহম, কিন্তু এবার বদলে গেছে সম্পর্কের সমীকরণ।

ভালো বন্ধুত্বটা তো ‘হুল্লোড়’-এর ফাঁকেই তৈরি হয়ে গেছে, এবার আরো গাঢ় হবে ওম-শ্রাবন্তীর বন্ধুত্ব। নবাগত পরিচালক অয়ন দে-র ‘ভয় পেয়ো না’ ছবির পোস্টার শুটে এমনই অবতারে ধরা দিলেন ওম-শ্রাবন্তী। বিয়ের বছর ঘোরার আগেই আবারও টোপর মাথায় দিয়ে বিয়ের পিঁড়িতে ওম, তবে এবার রিয়েল লাইফ রিল লাইফে।

কেমন হবে এই ছবির গল্প? ‘ভয় পেও না’-তে স্বামী-স্ত্রীর ভূমিকায়ই দেখা যাবে ওম-শ্রাবন্তীকে। চিত্রনাট্য বলছে, অনন্যা (শ্রাবন্তী) ডা. আকাশ চট্টোপাধ্যায়ের স্ত্রী। অনন্যার সঙ্গে সম্পর্ক এক্কেবারে ভালো নয় শাশুড়িমার। বউমাকে নিয়ে ভয় দেখিয়ে বাড়িছাড়া করতে চান। কিন্তু এর মাঝেই গল্পে ঢুকে পড়ে নতুন টুইস্ট। এমনিতে ভূতে ভয় পান শ্রাবন্তী, আবার হরর ছবিতে অভিনয় করতেও ভালোবাসেন। এটি তাঁর চার নম্বর ভুতুড়ে ছবি। শ্রাবন্তীর কথায়- ‘ভূতের ভয় পেতে ভালোবাসি। বেশ একটা গা ছমছমে ব্যাপার।’

তবে এবারই প্রথম নয়, এর আগেও একসঙ্গে জুটি বেঁধে পর্দায় হাজির হয়েছেন শ্রাবন্তী-ওম। ‘হুল্লোড়’ সিনেমায়ও তাদের একসঙ্গে দেখা গেছে।

Check Also

আমি মুক্তিযুদ্ধ দেখিনি, কিন্তু পদ্মা সেতু উদ্বোধন দেখেছি: সাওন

দেশের জনপ্রিয় অভিনেত্রী, নির্মাতা ও গায়িকা মেহের আফরোজ শাওন বলেছেন, আমি মুক্তিযুদ্ধ দেখিনি, কিন্তু আমি …

Leave a Reply

Your email address will not be published.