Wednesday , January 19 2022

প্রেমিকের সঙ্গে অন্তরঙ্গ অবস্থায় স্ত্রীর ফোন, খুন করেন ক্ষুব্ধ স্বামী!

ভারতের বানতলায় লেদার কমপ্লেক্সের নির্মানাধীন বহুতল ভবনে মহিলাকে খুনের কিনারা করেছে সেখানকার পুলিশ। মহিলাকে খুনের অভিযোগে সোমবার গ্রেফতার করা হয়েছে তাঁর স্বামীকে। অভিযুক্ত পুলিশকে জানিয়েছেন, তাঁর স্ত্রী বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছিলেন। সেজন্যই রাগের বশে তিনি খুন করেছেন স্ত্রীকে।

গত ২ ডিসেম্বর লেদার কমপ্লেক্সের নির্মীয়মাণ একটি বহুতলের পিছন থেকে এক মহিলার দেহ উদ্ধার করে পুলিশ। তাঁর গলায় শ্বাসরোধের চিহ্ন ছিল বলে জানিয়েছিল তারা। দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়। এর পর ওই এলাকার সিসিটিভি ফুটেজ এবং আশপাশের জেলার নিখোঁজের তালিকার উপর নির্ভর করেই তদন্তে নামে পুলিশ। তার পর ওই মহিলার পরিচয় জানা যায়। দক্ষিণ ২৪ পরগনার জীবনতলা এলাকার বাসিন্দা ওই মহিলার আত্মীয়রা তাঁর দেহ শনাক্ত করেন। পুলিশ জানিয়েছে, ওই মহিলার নাম অনিতা হাওলাদার।

পুলিশ তখনই জানতে পারে, ওই মহিলার স্বামীর নাম রাজু মণ্ডল (৩০)। তিনি ভাঙড় থানার মাধবপুরের বাসিন্দা। ওই মহিলার সঙ্গে প্রেম করেই বিয়ে হয়েছিল তাঁর। মহিলা ছিলেন রাজুর দ্বিতীয়া স্ত্রী। খুনের ঘটনার পর থেকেই ফেরার ছিলেন রাজু। তাঁর খোঁজ করছিল পুলিশ। সোমবার দুপুরে ঘটকপুকুর মোড়ে বাস ধরার জন্য দাঁড়িয়েছিলেন তিনি। তখনই পুলিশ গ্রেফতার করে তাঁকে।

পূর্ব ডিভিশনের ডিসি গৌরব লাল বলেছেন, ‘লেদার কমপ্লেক্সে কাজ করতে গিয়েই আলাপ হয়েছিল দু’জনের। তার পর বিয়ে করেন তাঁরা। কিন্তু স্ত্রীর বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্ক নিয়ে বিরক্ত ছিলেন তিনি। প্রতিশোধ নিতেই অভিযুক্ত খুন করেছেন বলে স্বীকার করেছেন। যেখানে দেহ উদ্ধার হয়েছিল, সেখানে স্ত্রীকে ডেকেছিলেন অভিযুক্ত। সেখানেই খুন করে পালিয়ে যান। স্ত্রীর প্রেমিককে খুন করার পরিকল্পনাও করেছিলেন তিনি। কিন্তু তার আগেই আমরা ঘটকপুকুর থেকে তাঁকে ধরে ফেলি।’

পুলিশ জানতে পেরেছে, ৩০ নভেম্বর স্ত্রীকে খুন করেছিলেন রাজু। পুলিশকে তিনি জানিয়েছেন, তাঁর স্ত্রী বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছিলেন। সাত জনের সঙ্গে স্ত্রীর সম্পর্ক ছিল বলে পুলিশকে জানিয়েছেন তিনি। স্ত্রীর সঙ্গে এত জনের প্রেমের কথা জানতে পারার পরই তিনি রাগের মাথায় শ্বাসরোধ করে খুন করেন স্ত্রীকে। অভিযুক্তের এই দাবি খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। তাঁকে আদালতে তুলে হেফাজতে নেওয়ার জন্য আবেদন জানাবে পুলিশ।

স্ত্রীর বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্ক নিয়ে পুলিশকে অনেক কিছুই জানিয়েছেন অভিযুক্ত রাজু। তিনি পুলিশকে জানিয়েছেন, তাঁর উপস্থিতিতেই স্ত্রীর প্রেমিক তাঁদের বাগুইহাটির বাড়িতে আসতেন। এমনকি তাঁর বাড়ির লোকের সামনেও একই কাজ করতেন স্ত্রী। বার বার বলা সত্ত্বেও তাঁর স্ত্রী বাড়িতে প্রেমিকদের ডাকা থেকে বিরত হননি।

সম্প্রতি প্রেমিকের সঙ্গে অন্তরঙ্গ অবস্থায় থাকার সময়ই তাঁকে ফোন করেছিলেন স্ত্রী। এর পর আর নিজেকে ধরে পারেননি অভিযুক্ত। তখন থেকেই স্ত্রীকে খুনের পরিকল্পনা করতে থাকেন। সেই মতই স্ত্রীকে খুন করেছিলেন অভিযুক্ত, এমনটাই জানিয়েছেন ওই পুলিশ অফিসার। সুত্র: আনন্দবাজার

পাঠকের মন্তব্য:

Check Also

একটি ভিডিও ক্লিপ তছনছ করে দিলো মধুমিতার জীবন!

ওয়েব সিরিজ ‘উত্তরণ’এর ট্রেলার রোববার (১৬ জানুয়ারি) প্রকাশ করা হয়েছে। যেখানে অভিনয় করছেন কলকাতার অভিনেত্রী …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *