তুলে নিয়ে বিয়ে করা সেই তরুণীর নাজমুল কারাগারে

সম্প্রতি পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জে ইশরাত জাহান পাখি নামে এক তরুণীর বিরুদ্ধে নাজমুল হাসান নামে এক কলেজছাত্রকে তুলে নিয়ে জোর করে বিয়ের অভিযোগে একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছিলো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। ভিডিওতে দেখা যায়, এক কলেজছাত্রকে জোর করে বিয়ে করছেন এক তরুণী। পরে ওই যুবক অভিযোগ করেন,

তাকে অপহরণ করে তুলে নিয়ে বিয়ে করেন ওই তরুণী। তিনি মামলাও করেন। এবার ওই তরুণীর যৌতুক মামলায় কলেজছাত্র নাজমুলকে (২৩) সোমবার (৬ ডিসেম্বর) পটুয়াখালী সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক আশিকুর রহমান কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। ভুক্তভোগী ইশরাত জাহান পাখির আইনজীবী আবুল কালাম আজাদ গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

পাখির আইনজীবী আবুল কালাম আজাদ জানান, পাখি জোর করে নাজমুলকে বিয়ে করেননি। যৌতুক না দেওয়ায় পাখির বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ এনেছিল নাজমুল। তার সঙ্গে পাখির প্রেমের সম্পর্ক ছিল। ২০২০ সালের ডিসেম্বরে দুই জনের সম্মতিতে শরিয়াহ মোতাবেক বিয়ে হয়। এরপর ঢাকার মিরপুরে একটি বাসা ভাড়া নিয়ে তারা সংসার জীবন শুরু করে। চলতি বছরের ২৭ সেপ্টেম্বর ঢাকা রায়েরবাজারের একটি কাজি অফিসে বিয়ের কাবিন সম্পন্ন হয়।

সেখানে কাবিনের মোহরানার টাকা নিয়ে জটিলতা তৈরি হয়। ওই সময়ের একটি ভিডিও প্রকাশ করে দাবি করা হয়, নাজমুলকে জোর করে বিয়ে করেছেন পাখি। তিনি আরও জানান, আসামি নাজমুল পাখির কাছে পাঁচ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে আসছিল। যৌতুক না দেওয়ায় তার বিরুদ্ধে জোর করে বিয়ে করার অভিযোগ আনা হয়।

সোমবার এ সংক্রান্ত দালিলিক তথ্যাদি উপস্থাপন করা হলে নাজমুলকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত। গত ৩ অক্টোবর পাখির বিরুদ্ধে একটি মামলা করে নাজমুল। এতে দাবি করা হয়, ২৭ সেপ্টেম্বর নাজমুলকে পটুয়াখালী লঞ্চঘাট থেকে অপহরণ করে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। প্রকৃতপক্ষে ২৭ সেপ্টেম্বর দুপুর দেড়টার সময় নাজমুল ঢাকায় কাজি অফিসে অবস্থান করছিল।

এ বিষয়ে ইশরাত জাহান পাখি বলেন, ‌‘বিয়ের আগে ও পরে নাজমুল আমার কাছে থেকে পাঁচ লাখের বেশি টাকা নিয়েছে। পরে নাজমুলের দাবিকৃত যৌতুকের টাকা দিতে না পরায় আমার বিরুদ্ধে (অপহরণ করে বিয়ে করার) মিথ্যা অভিযোগ আনা হয়েছিল। নাজমুলের অভিযোগ সোমবার আদালতে মিথ্যা প্রমাণ হয়েছে।’ পুলিশ সূত্র জানায়, গত ৯ অক্টোবর ইশরাত জাহান পাখি তার স্বামী নাজমুল হাসান, শ্বশুর এবং শাশুড়িকে আসামি করে পটুয়াখালী আদালতে যৌতুকের মামলাটি করেছিলেন। নাজমুলের করা মামলাটি পুলিশ তদন্ত করছে বলে জানা গেছে।

Check Also

বিদ্যালয় মাঠে নবজাতকের জন্ম দিলেন মা

চাঁদপুরে বাড়ি ফেরার পথে প্রসব বেদনা শুরু হওয়ায় বিদ্যালয় মাঠে নবজাতকের জন্ম দিয়েছেন এক মা। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *