তালেবানকে মেনে না নেওয়ার কঠিন খেসারত দিতে হচ্ছে পাঞ্জশিরবাসীকে

গোটা আফগানিস্তান নিয়ন্ত্রণে নিলেও এখনও তালেবানের দখলে আসেনি দেশটির পাঞ্জশির প্রদেশ। তবে সোমবার পাঞ্জশির দখলে তাদের কয়েকশ যোদ্ধাকে পাঠানো হয়েছে। এরই মধ্যে তালেবান যোদ্ধারা পাঞ্জশির ঘিরে ফেলেছে।

এএফপির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে— স্থানীয় সরকারি কর্মকর্তারা শান্তিপূর্ণভাবে তালেবানের হাতে নিয়ন্ত্রণ দিতে অস্বীকৃতি জানানোর পর পাঞ্জশিরে তালেবান যোদ্ধাদের পাঠানো হয়।

প্রয়াত তালেবানবিরোধী নেতা আহমদ শাহ মাসউদের ছেলে আহমদ মাসউদের সঙ্গে আলোচনার প্রস্তাবও দিয়েছে তালেবান। তবে তার সঙ্গে আলোচনা হলেও তা ফলপ্রসূ হয়নি। এমতাবস্থায় পাঞ্জশিরে জারি রয়েছে প্রতিরোধ। তালেবান বাহিনী খাবার ও জ্বালানি সরবরাহ বন্ধ করে দিয়েছে।

ফলে তালেবানকে মেনে না নেওয়ার খেসরাত দিতে হচ্ছে পাঞ্জশিরের সাধারণ মানুষকে। সংঘাতের ভয়ে সেখানকার নারী-শিশুরা পাহাড়ে আশ্রয় নিতে বাধ্য হয়েছেন।

তালেবানবিরোধী নেতা আমরুল্লাহ সালেহ টুইট করে লিখেছেন— আন্দারব উপত্যকায় খাবার এবং জ্বালানি আসতে দিচ্ছে না তালেবান। এখানে লোকজন মানবেতর জীবনযাপন করছেন। হাজার হাজার নারী ও শিশু পাহাড়ে আশ্রয় নিতে বাধ্য হয়েছেন।

‘গত দুদিন ধরে তালেবানরা শিশু ও বৃদ্ধদের অপহরণ করে তাদের ঢাল হিসেবে ব্যবহার করছেন। এভাবেই তারা বিভিন্ন বাড়িতে তল্লাশি চালাচ্ছেন।’

Check Also

যুদ্ধ চলছে দেশে, ভারতে এসে বিয়ে করলেন রুশ তরুণ ও ইউক্রেনীয় তরুণী

প্রেম মানে না কোনো বাধা এই প্রবাদ বাক্যটি আবারও সত্য প্রমাণিত করেছে রাশিয়ার এক তরুণ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.