Monday , January 24 2022

অবশেষে জানা গেল পরীমণির আইনজীবী কে এই আমান রেজা

মাদক মামলায় গ্রেফতারের পর এখন কারাগারে রয়েছেন আলোচিত চিত্রনায়িকা পরীমণি। এই নায়িকাকে গ্রেফতারের পর থেকেই বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ঘটনা ও ব্যক্তি আলোচনায় এসেছেন। এবার আলোচনার কেন্দ্রে পরীমণির আইনজীবী আমান রেজা। কে এই আমান রেজা? সর্বমহলে ঘুরপাক খাচ্ছে এই প্রশ্ন। তিনি ঢালিউডের অভিনয়শিল্পী হিসেবেই পরিচিত।

পেশায় আইনজীবী। পরীমণির প্রধান আইনজীবী মুজিবর রহমানের দলের আট সদস্যের মধ্যে আমান রেজা একজন। তিনি ইউনিভার্সিটি অব লন্ডন থেকে এলএলবি ডিগ্রি অর্জন করেন। বাংলাদেশে ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটিতে এলএলএম পড়ছেন। তার বাবা একজন ব্যবসায়ী। মা অবসরপ্রাপ্ত একজন জেলা জজ।

২০০৮ ফটোগ্রাফার এল কে লিটনের মাধ্যমে প্রযোজক গোলাম মোরশেদের সঙ্গে পরিচয় হয় আমান রেজার। তারপর পরিচালক হাফিজ উদ্দিনের ‘সেই তুফান’ সিনেমায় অভিনয়ের মাধ্যমে চলচ্চিত্রে যাত্রা শুরু করেন। প্রথম অভিনীত চলচ্চিত্র সেই তুফান হলেও মুক্তিপ্রাপ্ত প্রথম ছবি রেজা লতিফের ‘ভালোবাসার শেষ নেই’। ২০১৩ সাল পর্যন্ত প্রায় ২৯টি চলচ্চিত্রে অভিনয় করলেও মুক্তিপ্রাপ্ত ছবির সংখ্যা ১২টি।

আমান রেজা গণমাধ্যমকে বলেন, ‘পরীমণি একজন অভিনয়শিল্পী ও নারী। তার জামিনের পাওয়ার আইনগত অধিকার রয়েছে। আমরা চাই তার জামিনটা যেন শিগগিরই হয়। যদি তিনি অপরাধী প্রমাণিত হন তাহলে শাস্তি পাবেন। তবে তার জামিন পাওয়ার অধিকার আছে।

শুধু পরীমণি নয়, আমার দায়িত্ব হচ্ছে একজন আইনজীবী হিসেবে সাধারণ মানুষের জন্য ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে আইনগত সহায়তা করা। আমি শুধু পরীমণি না, চলচ্চিত্র জগতের অনেক পরিচালক ও অভিনয়শিল্পীদের মামলা পরিচালনা করেছি। আমি শুটিংয়ের ফাঁকে ফাঁকে আইন পেশাটাও পরিচালনা করে। পরীমণির শুনানির প্রথম দিন ঢাকার বাইরে থাকায় শুনানিতে অংশগ্রহণ করতে পারিনি। ’

গত শুক্রবার (১৩ আগস্ট) পরীমণিকে দুই দফায় ছয় দিনের রিমান্ড শেষে আদালতে হাজির করা হয়। পরীর পক্ষের আইনজীবী মুজিবর রহমান জামিনের আবেদন করেন। ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট ধীমান চন্দ্র মণ্ডল জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে পরীমণিকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

পাঠকের মন্তব্য:

Check Also

বিয়ের আসরে কাঁদলেন পরী, জড়িয়ে ধরলেন রাজ

আগেই জানা গিয়েছিল, শনিবার (২২ জানুয়ারি) বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সাড়তে চলেছেন ঢাকাই সিনেমার আলোচিত নায়িকা পরীমনি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *